অনলাইনের মাধ্যমে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন পদ্ধতি ২০২০

0 0
Read Time:10 Minute, 58 Second

২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা মন্ত্রনালয় ও শিক্ষাবোর্ড কর্তৃক অনুমোদিত কলেজ/মাদ্রাসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমূহে একাদশ শ্রেণিতে ১ম পর্যায়ে ইন্টারনেট অনলাইনের এর মাধ্যমে ০৯ আগস্ট থেকে ২০ আগস্ট (যারা পুনঃনিরীক্ষণের জন্য আবেদন করবে তাদের ও এই সময়ের মধ্যে আবেদন করতে হবে) এর মধ্যে, ২য় পর্যায়ে ৩১ আগস্ট থেকে ০২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এবং ৩য় পর্যায়ে ০৭ সেপ্টেম্বর থেকে ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ online –এ আবেদনপত্র দাখিল করা যাবে। আবেদন ফি (Rocket /bKash/Nagad/Sonali eSheba/Sonali Web Payment এর মাধ্যমে) জমা দেওয়া যাবে। ভর্তির আবেদন সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য নিচে তুলে দেওয়া হলোঃ

একাদশ শ্রেণিতে আবেদন সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় লিঙ্কঃ

অনলাইনে আবেদন এর লিঙ্কঃ

www.xiclassadmission.gov.bd

HSC Admission Application Process 2020-2021

মোবাইল নম্বর পরিবর্তন করতে এখানে ক্লিক করুন।

কলেজে ভর্তির আবেদন সংক্রান্ত নির্দেশনা ডাউনলোড করুন।

সিকিউরিটি কোড ভুলে গিয়ে থাকলে এখানে ক্লিক করুন

ভর্তির নিশ্চয়ন যাচাই করতে এখানে ক্লিক করুন।

অন-লাইনের মাধ্যমে ভর্তির আবেদন করার পদ্ধতি-

আবেদন পদ্ধতি: অনলাইনে আবেদনের পূর্বে শিক্ষার্থীকে শুধুমাত্র রকেট/বিকাশ/নগদ/সোনালী ই-সেবা/সোনালী ওয়েব পেমেন্ট ব্যবহার করে অন-লাইনের আবেদন ফি SMS এর মাধ্যমে প্রদান করতে হবে। প্রার্থীকে তার এসএসসি/সমমানের পরীক্ষার বোর্ড, রোল নম্বর এবং পাসের সন ব্যবহার ১৫০/- টাকা ফি জমা প্রদান করতে হবে।

ক) বিকাশের মাধ্যমে ফি প্রদান পদ্ধতিঃ

ফি সঠিকভাবে জমা হলে প্রার্থীর মোবাইলে নিশ্চিতকরণের একটি Transaction ID সহ SMS যাবে।

খ. রকেটের মাধ্যমে ফি প্রদান পদ্ধতিঃ

গ. নগদের মাধ্যমে ফি প্রদান পদ্ধতিঃ

১. রকেট/বিকাশ/নগদ/সোনালী ই- সেবা/ সোনালী ওয়েব পেমেন্ট এর মাধ্যমে নির্ধারিত আবেদন ফি ১৫০ টাকা জমা দেওয়ার পর আবেদনকারীকে নির্ধারিত website- এ (www.xiclassadmission.gov.bd)  Apply Online -এ Click করতে হবে।

এরপর প্রদর্শিত তথ্য ছকে এসএসসি/সমমান পরীক্ষা পাসের রোল নম্বর, বোর্ড ও পাসের সন এবং রেজিস্ট্রেশন নম্বর দিয়ে সঠিকভাবে এন্ট্রি করতে হবে। আবেদনকারীর দেয়া তথ্য সঠিক হলে তিনি তার ব্যক্তিগত তথ্য ও এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় প্রাপ্ত GPA দেখতে পাবেন।
২. এরপর শিক্ষার্থীর Contact Number (ফি প্রদানের সময় প্রদত্ত মোবাইল নম্বর) এবং প্রযোজ্য ক্ষেত্রে কোটা দিতে হবে।
৩. অতঃপর তাঁকে ভর্তিচ্ছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, গ্রুপ, শিফট এবং ভার্সন Select করতে হবে। এভাবে শিক্ষার্থী সর্বোচ্চ ১০টি (ইন্টারনেট এবং SMS উভয় পদ্ধতি মিলে) সর্বমোট কলেজ/মাদরাসা Select করতে পারবে। এই ফরমে আবেদনকারী তাঁর সকল আবেদনের পছন্দক্রমও নির্ধারণ করতে পারবে।
৪. এরপর আবেদনকারী “Preview Application” Button-এ ক্লিক করলে তার আবেদনকৃত কলেজসমূহের তথ্য ও পছন্দক্রম দেখতে পারবেন। তবে এসএমএস ৫টির বেশী করতে পারবে না।
৫. Preview-এ দেখানো তথ্যসমূহ সঠিক থাকলে আবেদনকারী “Submit” Button-এ ক্লিক করবেন।
৬. আবেদনটি সফলভাবে Submit করা হলে আবেদনকারী তাঁর প্রদত্ত Contact Number-এর মোবাইলে একটি নিশ্চিতকরণ SMS পাবেন এবং যাতে একটি সিকিউরিটি কোড (Security Code) থাকবে। এই Security Code টি গোপনীয়তা ও সতর্কতার সাথে সংরক্ষণ করতে হবে, যা পরবর্তীতে আবেদন
সংশোধন ও ভর্তি  সংক্রান্ত কাজে ব্যবহার করতে হবে।
৭. আবেদনকারী চাইলে তাঁর আবেদনসমূহের তথ্যাদিসহ উক্ত ফরমটি Download করে প্রিন্ট (Print)
নিতে পারবেন।

উপরের নির্দেশনা অনুযায়ী এসএসসি/সমমান পরীক্ষার রোল নম্বর, বোর্ড, পাসের সন ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর সঠিকভাবে এন্ট্রি দেয়ার পরও শিক্ষার্থীর ব্যক্তিগত তথ্য ও এসএসসি পরীক্ষার GPA দেখতে না পেলে, তাঁকে আবেদন ফি ১৫০/- (একশত পঞ্চাশ টাকা) জমা দেয়ার Transaction ID টি এন্ট্রি দিতে হবে এবং ফি প্রদানের জন্য তিনি যেই অপারেটর (অর্থাৎ রকেট/বিকাশ/নগদ/সোনালী ই-সেবা, সোনালী ওয়েব পেমেন্ট) ব্যবহার করেছে তাকে Select করতে হবে। পরবর্তীতে ৩০ মিনিট পর ইন্টারনেটে আবেদন করার জন্য পূর্বে উল্লেখিত পদ্ধতিতে অনুসরণ করতে হবে।

SMS এর মাধ্যমে যেভাবে ভর্তির আবেদন করবেন-

এসএমএস এর মাধ্যমে আবেদন করা যাবে না। শুধুমাত্র অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন করা যাবে।

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে:
উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাসকৃত আবেদন কারীদের ক্ষেত্রে রোল নম্বর এবং রেজিস্ট্রেশন নম্বর একই বলে বিবেচিত হবে। এ ক্ষেত্রে রোল নম্বরে অন্তর্ভুক্ত ‘-‘ চিহ্নটি উপেক্ষা করতে হবে।
এখানে উল্লেখ্য যে,

  • — তারিখ রাত ১১:৫৯ মিঃ পর্যন্ত আবেদন করা যাবে।
  • SMS-এর মাধ্যমে একজন আবেদনকারী একাধিক প্রতিষ্ঠানে (অনধিক-১০টি)/একই প্রতিষ্ঠানের একাধিক গ্রুপ অথবা একাধিক শিফটে আলাদাভাবে আবেদন করতে পারবে। তবে প্রতি ক্ষেত্রেই ফি বাবদ ১২০/- (একশত বিশ টাকা) প্রদান করতে হবে।
  • একজন প্রার্থী ইন্টারনেট ও SMS উভয় পদ্ধতি মিলে সর্বোচ্চ ১০টি কলেজে আবেদন করতে পারবে।
  • একই Contact mobile number ব্যবহার করে একাধিক শিক্ষার্থী আবেদন করতে পারবে না। একই শিক্ষার্থীর একাধিক আবেদনে একই Contact mobile number ব্যবহার করতে হবে।

আবেদন ফিঃ গতবারের মতো এবারও অনলাইনে আবেদনের জন্য ১৫০ টাকা এবং এসএমএসের মাধ্যমে আবেদনের জন্য ১২০ টাকা ফি দিতে হবে।

আবেদন ফিঃ অন-লাইনে সর্বোচ্চ ১০ টি কলেজে আবেদনের জন্য ১৫০/- টাকা আবেদন ফি প্রদান করতে হবে। উল্লেখ্য, অনলাইনে আবেদনের ক্ষেত্রে ১ টি কলেজে আবেদন করলেও ১৫০/- টাকা চার্জ করবে আবার ১০টি করলেও ১৫০/- চার্জ করবে। অর্থাৎ এসএমএস এ আবেদন পদ্ধতির মত কলেজ প্রতি আলাদা চার্জ করা হবে না।

১ম পর্যায়ে আবেদনের সময়সীমাঃ আবেদন প্রক্রিয়া ০৯ আগস্ট থেকে শুরু হয়ে ২০ আগস্ট (যারা পুনঃনিরীক্ষণের জন্য আবেদন করবে তাদের ও এই সময়ের মধ্যে আবেদন করতে হবে) পর্যন্ত।

১ম মেধা তালিকার ফলাফল প্রকাশঃ ভর্তির জন্য মনোনীত শিক্ষার্থীদের ১ম মেধাক্রম ২৫ আগস্ট এসএমএস এবং স্ব স্ব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নোটিশ বোর্ড বা ওয়েবসাইটের পাশাপাশি লেখাপড়া বিডির এই লিঙ্কেও প্রকাশ করা হবে।

শিক্ষার্থীর Selection নিশ্চায়ন (শিক্ষার্থী নিশ্চিত না করলে ১ম পর্যায়ের Selection এবং আবেদন বাতিল হবে): ২৬ থেকে ৩০ আগস্ট পর্যন্ত।

২য় পর্যায়ের আবেদনের সময়সীমাঃ ৩১ আগস্ট থেকে ২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

পছন্দক্রম অনুযায়ী ১ম মাইগ্রেশনের ফল প্রকাশঃ ০৪ সেপ্টেম্বর

২য় পর্যায়ের শিক্ষার্থীর Selection নিশ্চায়ন (শিক্ষার্থী নিশ্চিত না করলে ২য় পর্যায়ের Selection এবং আবেদন বাতিল হবে): ০৫ থেকে ০৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

৩য় পর্যায়ের আবেদনের সময়সীমাঃ ০৭ থেকে ০৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

পছন্দক্রম অনুযায়ী ২য় মাইগ্রেশনের ফল প্রকাশঃ ১০ সেপ্টেম্বর । (রাত ৮:০০ টায়)

৩য় পর্যায়ের আবেদনের ফল প্রকাশঃ ১০ সেপ্টেম্বর । (রাত ৮:০০ টায়)

৩য় পর্যায়ের শিক্ষার্থীর Selection নিশ্চায়ন (শিক্ষার্থী নিশ্চিত না করলে ৩য় পর্যায়ের Selection এবং আবেদন বাতিল হবে): ১১ থেকে ১২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত

ভর্তির সময়সীমাঃ ১৩ সেপ্টেম্বর থেকে ১৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত

(ভর্তির সময়সীমা ১৩,১৪ ও ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে ১৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছে।

ক্লাশ শুরুর তারিখঃ

কলেজ কর্তৃক (Confirmation) নিশ্চিতকরণঃ 

নিবন্ধন ফিঃ মনোনীতদের তালিকা প্রকাশের পর শিক্ষার্থী ১৯৫ টাকা মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পাঠিয়ে দিয়ে নিবন্ধন করবেন, আগে কলেজ বোর্ডকে এ টাকা দিলেও এখন শিক্ষার্থীরা নিজেরাই বোর্ডকে টাকা জমা দেবে।

২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে কলেজ/মাদ্রাসা/কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমূহে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদনের নির্দেশিকা

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %

Average Rating

5 Star
0%
4 Star
0%
3 Star
0%
2 Star
0%
1 Star
0%

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x
error: Content is protected !!